মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৩০ August ২০১৬

চেয়ারম্যান

A M M Azhar

Chairman, Additional Secretary

NTRCA, Ministry of Education

একজন শিক্ষক সমাজে জ্ঞানের সঞ্চারণ ও বিকাশে অন্যতম মূখ্য ভূমিকা পালন করেন। ভবিষ্যৎ উপযোগী জ্ঞান বিজ্ঞানে জাতিকে সমৃদ্ধ করা এবং সংকট মোকাবেলার জন্য প্রস্ত্তত করার দায়িত্বও অনেকাংশে একজন সচেতন শিক্ষক নিয়ে থাকেন। আধুনিক জ্ঞান সমৃদ্ধ মানুষই হতে পারেন একজন যোগ্য ও দক্ষ শিক্ষক। বাংলাদেশে প্রায় ৩৩,০০০ (তেত্রিশ হাজার) বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে; যা দেশের সমগ্র শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রায় ৯৮%। বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহে যোগ্য ও দক্ষ শিক্ষক নির্বাচনের লক্ষ্যে ২০০৫ সালে একটি আইনের মাধ্যমে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ) নামে একটি স্বায়ত্ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠিত হয়। জাতিকে দক্ষ মানব সম্পদে পরিণত করার প্রয়াসে বেসরকারি স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষার জন্য উপযুক্ত শিক্ষক-মান নির্ধারণ, যোগ্যতা নির্ধারণী পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদেরকে নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন প্রদান, নিবন্ধিত ও প্রত্যয়নকৃত শিক্ষক প্রার্থীদের তালিকা প্রস্ত্ততকরণসহ ক্ষেত্র বিশেষে প্রশিক্ষণ প্রদানের মত গুরম্নত্বপূর্ণ কার্যাবলিও এই কর্তৃপক্ষের কর্ম অধিক্ষেত্রের আওতাভুক্ত। এনটিআরসিএ প্রতিষ্ঠালগ্ন হতে অর্পিত দায়িত্বাবলি যথাসম্ভব সুষ্ঠুভাবে সম্পাদন করে চলেছে যার ইতিবাচক প্রভাব দেশের সামগ্রিক শিক্ষা ব্যবস্থাপনায় ইতোমধ্যেই দৃশ্যমান হতে শুরম্ন করেছে।

 বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ আইন ২০০৫-এর ১৭(১) ধারার বিধানমতে এনটিআরসিএ’র প্রতিবছর সম্পাদিত কর্মকান্ড সমন্বয়ে বার্ষিক প্রতিবেদন প্রস্ত্তত করে সরকার তথা শিক্ষা মন্ত্রণালয় সমীপে উপস্থাপন করা হয়ে থাকে। প্রতিবেদনে কর্তৃপক্ষের ভিশন, মিশন, সংশিস্নষ্ট বছরে সম্পাদিত কার্যক্রমের সংক্ষিপ্ত বিবরণ, ভবিষ্যৎ পরিকল্পনাসহ প্রাসঙ্গিক অন্যান্য বিষয়াদির প্রতিফলন থাকে। প্রতি বছরের ন্যায় এই বছরের প্রতিবেদনেও এনটিআরসিএ সৃষ্টির পর থেকে এ যাবৎ গৃহীত শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার ফলাফলের বিসত্মারিত তথ্যভিত্তিক পরিসংখ্যান এবং এনটিআরসিএ আইন ও পরবর্তীতে জারীকৃত পরিপত্রসমূহ অমত্মর্ভুক্ত করা হয়েছে, যা সংশিস্নষ্ট সকলের প্রয়োজন মেটাতে সহায়ক হবে। ভবিষ্যতে এ প্রতিষ্ঠানটি আপনাদের সক্রিয় সহযোগিতায় আরও গুরম্নত্বপূর্ণ দায়িতব পালনের প্রস্ত্ততি গ্রহণ করছে; যা শিক্ষা ক্ষেত্রে প্রত্যাশিত পরিবর্তন ত্বরান্বিত করবে মর্মে আমি আশাবাদ ব্যক্ত করছি।


Share with :
Facebook Facebook