মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২nd ডিসেম্বর ২০১৮

 

চেয়ারম্যানের বার্তা

 

প্রিয় বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহে নিয়োগ প্রত্যাশী/নিবন্ধিত সনদধারীগণ, আপনারা এনটিআরসিএ’র  Customer  বা সেবা প্রার্থী। তাই এনটিআরসিএ আপনাদেরকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেয় এবং দিতে আগ্রহী। আপনারা আছেন বলেই এনটিআরসিএ আছে, তাই আপনারা প্রকারান্তরে আমাদের নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষ। একারনে আমরা আপনাদের সর্বাত্মক সেবাদানের মাধ্যমে সন্তুষ্ট করতে বদ্ধপরিকর। বিগত ১০ (দশ) বছরে এনটিআরসিএ সরকারের দিক নির্দেশনায় এবং পরামর্শে নিজেদের সক্ষমতা ব্যাপক হারে বৃদ্ধি করতে সক্ষম হয়েছে। সরকার দেশের সার্বিক শিক্ষা ব্যবস্থার উন্নয়নে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়েছে। সে কারণে আমরাও আমাদের সেবার মান উন্নয়নে বাধ্য হয়েছি এবং কিছু দিনের মধ্যেই বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন (বিপিএসসি) এর সমকক্ষতা অর্জন করবো বলে দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি। আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থায় বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা প্রায় ৭০% । সুতরাং বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মানসম্পন্ন শিক্ষক নিয়োগ না করে সার্বিক শিক্ষার মান উন্নয়ন সম্ভব নয়-এই বিষয়টি অনুধাবন করে সরকার এনটিআরসিএ প্রতিষ্ঠা করে এবং এনটিআরসিএ এখন মানসম্পন্ন শিক্ষক নিয়োগে সুপারিশ করার সক্ষমতা অর্জন করেছে। আগামী পঞ্চদশ শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা হতে আমরা বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন (বিপিএসসি) এর সেবার মানকে অতিক্রম করতে চাই যার ফলে আরো মানসম্পন্ন শিক্ষক বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নিয়োগের জন্য সুপারিশ করতে পারবো বলে বিশ্বাস করি। তাই জাতীয় শিক্ষার মান উন্নয়নে আপনাদের সহযোগিতা ও সহমর্মিতা একান্তভাবে কামনা করি। ডিসেম্বর ২০১৮ হতে ডিসেম্বর ২০১৯ এর মধ্যে আমরা ২টি নিবন্ধন পরীক্ষা এবং ২টি নিয়োগ কার্যক্রমের মাধ্যমে ৬০,০০০ (ষাট হাজার) জন শিক্ষক নিয়োগের সুপারিশ প্রণয়ন করার লক্ষ্যমাত্রা ধার্য করেছি। বিপিএসসি এখনও বছরে ২টি পরিক্ষা নেয়নি কিন্তু আমরা আপনাদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে দুবছরের কাজ এক বছরে সম্পন্ন করার দুরুহ লক্ষ্যমাত্রা ধার্য করেছি যা জাতীয় জীবনে বেকারত্ব দূরীকরণে এবং অর্থনৈতিক গতি সঞ্চারণে অনন্য সহায়ক ভূমিকা পালন করবে। আপনাদের ব্যক্তিগত ও সমষ্টিগত ঐকান্তিক সহযোগিতা ব্যতীত এই বিশাল লক্ষ্য অর্জন কিছুতেই সম্ভব হবে না। 

 

এনটিআরসিএ একটি সম্পূর্ণ দুর্নীতিমুক্ত প্রতিষ্ঠান এবং এ প্রতিষ্ঠানে কর্মরত সকলেই আমরা নিঃশর্ত ও নিঃস্বার্থ সেবা দিতে বদ্ধপরিকর বলে আমরা গর্ববোধ করি। এ প্রতিষ্ঠানে কেউ যদি আপনাকে কাঙ্খিত সেবা দিতে সামান্যতম গাফিলতি করে বা কেউ যদি আপনার প্রাপ্য সেবা/কাজের জন্য কোন অর্থ বা সুবিধা দাবি করে তবে তা সরাসরি চেয়ারম্যান, এনটিআরসিএ-কে ০২-৪১০৩০০৪৩ নং ফোনে (অফিস চলাকালীন) অবহিত করুন এবং চেয়ারম্যান, এনটিআরসিএ-এর মাঝে প্রত্যাশিত সেবা প্রদানে শিথিলতা পরিলক্ষিত হলে বা দুর্নীতির সামান্যতম ইঙ্গিত পেলে সচিব, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ, শিক্ষা মন্ত্রণালয়-কে অবহিত করে এই প্রতিষ্ঠানকে সম্পূর্ণ দুর্নীতিমুক্ত রাখতে এবং এ প্রতিষ্ঠানের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীকে উৎকৃষ্ট সেবাদানে সাহায্য করুন। আমাদের সেবাদানে বা পেশাগত আচরণে আপনি অসন্তুষ্ট হলে আমাদেরকে বলে তা সংশোধনের সুযোগ দিন এবং আমাদের সেবায় সন্তুষ্ট হলে আমাদের সেবা সম্পর্কে এবং বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মানসম্পন্ন শিক্ষক নিয়োগে সরকারের এ মহতী  প্রচেষ্টা সম্পর্কে অন্যকে বলুন।

 

আপনারা আছেন বলেই আমরা আছি, আপনাদের আনন্দে আমরা আনন্দিত হব। আপনাদের মুখে হাসি ফোটাতে না পারলে আমাদের সকল চেষ্টা ব্যর্থতায় পর্যবসিত হবে। আপনাদের মুখে হাসি ফোটাতে আমরা সদা প্রস্তুত।